,

Patato-2201240553

নতুন আলুর ন্যায্য মূল্য পাচ্ছেন না কৃষক

হাওর বার্তা ডেস্কঃ ঠাকুরগাঁওয়ে নতুন আলুর ন্যায্য মূল্য পাচ্ছেন না কৃষক। গত বছর যে আলু মাঠেই বিক্রি হয়েছিল ২৫ থেকে ৩০ টাকা কেজি দরে, এবার তা বিক্রি হচ্ছে মাত্র ৬ টাকায়। কৃষি বিভাগ বলছে, মজুদ আলু শেষ হলেই প্রকৃত দাম পাবে কৃষকেরা।

ঠাকুরগাঁওয়ে নতুন আলু নিয়ে বিপাকে কৃষক। আগাম এ আলুর দাম কমে কেজি ছয় টাকা হলেও মিলছে না ক্রেতা।

কৃষকরা জানান, এক বিঘা জমিতে আগাম আলু উৎপাদন করতে ব্যয় হয়েছে ৩৫ থেকে ৪০ হাজার টাকা। কিন্তু ৫-৬ টাকা কেজি দরে বিক্রি করায় বিঘা প্রতি পাওয়া যাচ্ছে মাত্র ১৫-১৬ হাজার টাকা।

এক আলু চাষী জানান, ‘আলু চাষে আমাদের খরচ ২৫ থেকে ৩০ হাজার, কারও কারও ৪০ হাজার টাকা। দাম কম থাকার কারণে এবার বিঘা প্রতি ২০-২৫ হাজার টাকা লোকসান হচ্ছে।’

কৃষি বিভাগ বলছে, গত বছরের আলুর বাড়তি মজুদ শেষে হলে কৃষকরা ভালো দাম পাবেন।

ঠাকুরগাঁও কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক আবু হোসেন বলেন, ‘গতবছরের যেসব পুরনো আলু রয়েছে এগুলো বিক্রি শেষ হলে আমরা আশা করছি যে, এই আলুর দাম কৃষকরা যথাযথভাবে পাবেন।’

এবার জেলার ২৭ হাজার ৬৪৭ হেক্টর জমিতে আলু চাষ হয়েছে। এরইমধ্যে দুই হাজার ৭৭০ হেক্টর জমির আলু বাজারে উঠেছে।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর