,

jj-finla-samakal-61e55d885a81b

শীতে কাঁপছে উত্তরাঞ্চল শৈত্যপ্রবাহ

হাওর বার্তা ডেস্কঃ উত্তরের জনপদে জেঁকে বসেছে শীত। তীব্র ঠাণ্ডায় স্থবির হয়ে পড়েছে উত্তরাঞ্চল। বেড়েছে ঠাণ্ডাজনিত রোগ।

বুধবার (১৯ জানুয়ারি) দিনাজপুরে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ৯ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। তীব্র ঠাণ্ডায় কাহিল হয়ে পড়েছে এই অঞ্চলের মানুষ। শীতে স্থবির হয়ে পড়েছে দিনাজপুরসহ এই জনপদের মানুষের স্বাভাবিক জীবনযাত্রা।

দিনাজপুর আঞ্চলিক আবহাওয়া অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জানান, বুধবার দিনাজপুরে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৯ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এই অঞ্চলে শৈত্যপ্রবাহ অব্যাহত রয়েছে। ঘণ্টায় ৮ থেকে ১০ কিলোমিটার গতিতে ধাবিত হচ্ছে শৈত্যপ্রবাহ। তবে ঘন কুয়াশার কারণে বৃহস্পতিবার থেকে রাতের তাপমাত্রা কিছুটা বাড়তে পারে। কিন্তু দিনের তাপমাত্রা অপরিবর্তিত থাকবে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস।

এদিকে দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে শীতের তীব্রতা বেড়েছে। মধ্যরাত থেকে দুপুর পর্যন্ত ঘন কুয়াশায় ঢেকে থাকছে জনপদ। খেটে খাওয়া মানুষের বেড়েছে কষ্ট। বৃদ্ধ ও শিশুদের ডায়রিয়াসহ ঠাণ্ডাজনিত বিভিন্ন রোগ দেখা দিয়েছে।

ফুলবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জানান, উপজেলায় তালিকা করে অসহায় মানুষদের মধ্যে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হচ্ছে।

লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলায় তীব্র শীতে জনজীবন স্থবির হয়ে পড়েছে। গত দুই সপ্তাহে ঠাণ্ডাজনিত রোগে শিশু ও বয়স্কদের আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে বলে জানিয়েছে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স। ঘন কুয়াশা এবং হিমেল হাওয়ার কারণে কৃষকরা কৃষি খেতে কাজ করতে পারছে না।

পাটগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা (ইউএইচঅ্যান্ডএফপিও) সাইফুল ইসলাম জানান, শীত বৃদ্ধি পাওয়ায় ঠাণ্ডাজনিত রোগীর হারও বেড়েছে। শীতে শিশু ও বৃদ্ধরা ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয় বেশি।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর