,

Halda-2103141214

প্রাকৃতিক মৎস্য প্রজনন ক্ষেত্র হালদা নদীকে রক্ষা করেছে সরকার

হাওর বার্তা ডেস্কঃ দক্ষিণ এশিয়ার একমাত্র প্রাকৃতিক মৎস্য প্রজনন ক্ষেত্র হালদা নদীকে রক্ষা করতে সব ধরনের নিরাপত্তা বলয় তৈরি করেছে সরকার। জীববৈচিত্র রক্ষায় এবার নদীর আটটি ‘রেড জোনে’ বসানো হয়েছে সিসি ক্যামেরা। বিশ্বের কোথাও এমন উদ্যোগ গ্রহণের নজির নেই। যার ফলে অবাক হয়েছেন অনেকেই।

দেশে হালদা একমাত্র নদী যেখান থেকে রুই জাতীয় মাছের নিষিক্ত ডিম সংগ্রহ করা হয়। সরকারের নানান কার্যকরী কর্মকাণ্ডে রেণু পোনা রেকর্ড পরিমাণ বৃদ্ধি পেয়েছে। গত বছর এ নদী থেকে ২৫ হাজার ৫৩৬ কেজি ডিম সংগ্রহ করা হয়। মাছের নিরাপদ প্রজনন নিশ্চিত করতে চার লাখ ৬৫ হাজার টাকা ব্যয়ে নদীর আটটি পয়েন্টে স্থাপন করা হয়েছো সিসি ক্যামেরা।

সিসি ক্যামেরা মনিটরিংয়ে সদরঘাট নৌ থানার আওতায় হাটহাজারী উপজেলার রামদাস মুন্সিরহাটে স্থাপন করা হয়েছে অস্থায়ী নৌ-পুলিশ ক্যাম্প। সিসি ক্যামেরায় অসঙ্গতি দেখা দিলেই ছুটে যাচ্ছেন ক্যাম্পের আট পুলিশ সদস্য। বৃহস্পতিবার সিসি ক্যামেরা দেখে অভিযানে গিয়ে বিভিন্ন পয়েন্ট থেকে সাত হাজার মিটার ঘের জাল উদ্ধার করা হয়েছে।

সদরঘাট নৌ থানার ওসি এবিএম মিজানুর রহমান বলেন, রামদাস মুন্সিরহাটে অস্থায়ী ক্যাম্পকে কেন্দ্র করে হালদা নদীর যেসব অংশ বেশি বিপদজনক, মাছ বেশি ডিম ছাড়ে- সেসব স্থানে হাই পাওয়ারফুল পিটিজেড ক্যামেরাগুলো লাগানো হয়েছে। দুই কিলোমিটার বিস্তৃত এসব ক্যামেরা পাঁচ কিলোমিটার জায়গা কাভারেজ দিচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, এসব ক্যামেরা ৩৬০° ঘোরানো যায়, মোবাইল থেকেও মনিটরিং করা যায়। এটা ফেস ডিটেকশন পর্যন্ত নিয়ে আসা যায়। এসব সিসি ক্যামেরা ঢাকা, চট্টগ্রামসহ বিভিন্ন স্থান থেকে একাধিক ডিভাইস দ্বারা মনিটরিং করা হচ্ছে।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক ও হালদা রিভার রিসার্চ ল্যাবরেটরির সমন্বয়ক ড. মুহম্মদ মনজুরুল কিবরিয়া বলেন, আমাদের ৪০ জন স্বেচ্ছাসেবী হালদা নদীর মা মাছ পাহারা ও সুরক্ষায় কাজ করছেন। কিন্তু এত বড় একটি নদীকে এত কম মানুষ দিয়ে পাহারা দেয়া সম্ভব না। এই জন্য আমরা অনেকদিন ধরেই সিসি ক্যামেরা বসানোর কথা বলে আসছিলাম।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর