,

image-199531

ফরিদপুরে বাস উল্টে প্রাণ গেলো চারজনের

হাওর বার্তা ডেস্কঃ ফরিদপুরের ভাঙ্গা-মাওয়া এক্সপ্রেস হাইওয়েতে প্রথমবারের মতো সড়ক দুর্ঘটনায় চারজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছে অন্তত ৩০ জন। আহতদের ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও ভাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

সেনাবাহিনী, হাইওয়ে থানা পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘণ্টাব্যাপী চেষ্টা চালিয়ে নিহত ও আহতদের উদ্ধার করে। বুধবার দুপুর ১২টার দিকে এক্সপ্রেস হাইওয়ের বগাইল টোলপ্লাজা এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত চারজনের মধ্যে তিনজন নারী ও একজন পুরুষ। নিহত পুরুষের পরিচয় পাওয়া গেলেও তিন নারীর পরিচয় এখনও নিশ্চিত করা যায়নি। নিহত ওই পুরুষের নাম আ. রশীদ(৫৫)। তিনি চুয়াডাঙ্গা জেলার পেয়ারাতলা এলাকার মো. আলমাসের ছেলে। এদিকে নিহত একজন নারীর নাম নুরজাহান (৩৫) বলে জানা গেছে। তবে তার পূর্নাঙ্গ পরিচয় পাওয়া যায়নি।

গুরুতর আহত আল-আমিন (১৯), মোঃ হুসাইন মোল্লা (৩০), মো. জাকির (৩০), রফিকুল ইসলাম (৬), আলেক সর্দার (৭৫), নুরজাহান (৪০), নুরুল আমিন (৪৫), রুপা আক্তার (৭), আব্দুর রহিম (১২), আবু হানিফ (৩২), সেন্টু মাতুব্বর (৩৫), সাব্বির (২০), সজীব মালো (২০), বর্ষা (২০)সহ অন্তত ৩০ জনকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও ভাঙ্গা উপজেলা কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

ভাঙ্গা ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার মাহাতাব উদ্দিন জানান, দুপুর ১২টার দিকে দুর্ঘটনাটি ঘটে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস, হাইওয়ে পুলিশ ও সেনা সদস্যরা উদ্ধার অভিযান চালায়।

ভাঙ্গা হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওমর ফারুক জানান, কাঠালবাড়ী ঘাট থেকে ছেড়ে আসা ভাঙ্গাগামী দুরন্ত পরিবহন নামের একটি লোকাল বাস (ঢাকা মেট্রো-ব-১১-৩১১৪) নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে এক্সপ্রেস হাইওয়ের বগাইল টোলপ্লাজা এলাকায় সড়ক বিভাজনের উপর উঠে যায়। এতে বাসটি উল্টে দুর্ঘটনার শিকার হয়। এতে ঘটনাস্থলেই তিনজন নিহত হন। আহত হয় অন্তত বাসের আরো ৩০ যাত্রী। ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে আরো একজনের মৃত্যু হয়।

তিনি জানান, বাসের নিচ থেকে দুজনের ও ভিতর থেকে একজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। আহতদের ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও ভাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠানো হয়েছে। আহত অন্তত ৩০ জনের মধ্যে পাঁচজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর