,

14

শীতে কাঁপছে হতদরিদ্র মানুষ

হাওর বার্তা ডেস্কঃ গাজীপুরের কালিয়াকৈরে আবারও জেঁকে বসেছে শীত, কাঁপছে হতদরিদ্র ও ছিন্নমূল বস্ত্রহীন মানুষ। শীত ক্রমেই বাড়ছে, সঙ্গে সঙ্গে বাড়ছে গরীব অসহায় মানুষের কষ্ট। এতে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে হতদরিদ্র নিম্ন আয়ের মানুষের জনজীবন।

সরেজমিনে ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ফুলবাড়ীয়া, সূত্রাপুর, ঢালজোড়া, আটাবহ, বোয়ালী, শ্রীফলতলী সহ বিভিন্ন এলাকায় গত কয়েকদিনের শীতের তীব্রতায় বিপাকে পড়েছেন নিম্ন ও মধ্য আয়ের মানুষ।

সারা রাত ঝড়তে থাকে কুয়াশা। শীতের কারণে কেউ আবার কাজ বন্ধ করে বসে আগুন পোহাচ্ছেন। এতে করে বৃদ্ধ ও শিশুদের নিয়ে চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন পরিবারের লোকজন। চারিদিক কুয়াশা ও বাতাস থাকায় চরম ঠাণ্ডায় কাজে বেড় হতে পারছেন না মানুষ।

উপজেলার অটোচালক বাদশা মিয়া জানান, অটো নিয়ে রাস্তায় বেড় হইছি; কিন্তু প্রয়োজনীয় সংখ্যক যাত্রী পাচ্ছি না। গত দুই দিনে অটোমালিকের জমার টাকা রোজগার করতে পারি নাই। পরিবারের জন্য খাবার কিনতে কষ্ট হচ্ছে।

এছাড়া চলতি ইরি-বোরো চাষের মৌসুম শুরু হলেও শীতের কারণে খেতে আমন চারা রোপণ করতে পারছেন না কৃষক। শীত জনিত রোগের প্রকোপ দেখা যাচ্ছে প্রত্যন্ত এলাকায়। এছাড়া গৃহপালিত পশুপাখি নিয়েও চরম বিপাকে পড়েছেন খামারীসহ অন্যান্যরা। তীব্র শীতে বেড়েছে বিভিন্ন হাসপাতালে রোগীর চাপ।

এদিকে শীত আর চরম ঠাণ্ডার কারণে জমে উঠেছে মৌসুমী পুরান কাপড় ব্যবসাও। তুলনামূলক কম দাম হওয়ায় ফুটপাতের দোকানে রয়েছে উপচে পড়া ভিড়। ক্রেতা লক্ষণ বিশ্বাস জানান, শীতের কারণে কয়েক দিন ধরে শীতের কাপড়ের দাম হঠাৎ বেড়ে গেছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্মকর্তা ডা. আল বেলাল জানান, শীতের কারণে রুগী হাসপাতোলে থাকতে চায় না তবে রুগীদের জন্য প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা আমাদের প্রস্তুত আছে। ঠান্ডাজনিত কিছু রুগীর চাপ আছে বলে তিনি জানান কিন্তু সর্বোপরি করোনার কারণে রুগীর চাপ আগের তুরনায় খুব বেশী নয়।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী হাফিজুল আমিন জানান, শীতার্ত মানুষের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে উপহার হিসেবে কম্বল বিতরণ করা হয়েছে। দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয় থেকে ৬ লাখ টাকার বরাদ্ধ এসেছিল। তার মাধ্যমে প্রায় ১ হাজার ৩ শত কম্বল বিতরণ করা হয়েছে। তারপর আমরা যখনই কোথাও খবর পাচ্ছি, অসহায় মানুষ জ্ঞাত অবস্থায় আছে তাৎক্ষনিকভাবে তাদেরকে কম্বল সরবরাহ করাসহ সাহায্য করা হচ্ছে।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর