,

19

ছাত্রীর গায়ে আগুনের ঘটনায় প্রধানমন্ত্রী মর্মাহত, যে নির্দেশ দিলেন

হাওর বার্তা ডেস্কঃ ছাত্রীর গায়ে আগুনের-ফেনীর সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদরাসায় পরীক্ষা কেন্দ্রে ছাত্রীর গায়ে আগুন দিয়ে হত্যাচেষ্টার ঘটনায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মর্মাহত ও গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন বলে জানিয়েছেন জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের সমন্বয়ক ডা. সামন্তলাল সেন।

আজ রোববার দুপুরে তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে তার কার্যালয়ে দেখা করতে যান। এ সময় প্রধানমন্ত্রী তাকে এ ঘটনায় উদ্বেগের কথা জানান। রোববার বেলা ৩টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ডা. সামন্তলাল সেন বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ফেনীর ওই ছাত্রীর সার্বিক দায়িত্ব নিয়েছেন। তিনি তার চিকিৎসাসহ সার্বিক বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে বলেছেন।

তিনি আরও বলেন, এ ঘটনায় জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতারে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। আমরা মেয়েটির চিকিৎসা চালিয়ে যাচ্ছি। তার অবস্থা এখনও আশঙ্কাজনক।

এর আগে শনিবার সকালে আলিম পরীক্ষা দিতে সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদরাসায় যান নুসরাত জাহান রাফি নামে ওই ছাত্রী। মাদরাসার এক ছাত্রী তার বান্ধবী নিশাতকে ছাদের উপর কেউ মারধর করছে-এমন সংবাদ দিলে রাফি ওই বিল্ডিংয়ের চার তলায় যান।

সেখানে মুখোশ পরা চার-পাঁচ ছাত্রী তাকে অধ্যক্ষ সিরাজ উদদৌলার বিরুদ্ধে মামলা ও অভিযোগ তুলে নিতে চাপ দেয়। রাফি অস্বীকৃতি জানালে তারা তার গায়ে আগুন দিয়ে পালিয়ে যায়। এর আগে গত ২৭ এপ্রিল ওই ছাত্রীকে নিজ কক্ষে নিয়ে শ্লীলতাহানির অভিযোগে মাদরাসার অধ্যক্ষ সিরাজ উদদৌলাকে আটক করে পুলিশ।

ওই ঘটনার পর থেকে তিনি কারাগারে। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর মা শিরিন আক্তার বাদী হয়ে সোনাগাজী মডেল থানায় মামলা করেন। এদিকে এ ঘটনায় রোববার থেকে আগামী ১৭ এপ্রিল পর্যন্ত মাদরাসার স্বাভাবিক কার্যক্রম ও অনির্দিষ্টকালের জন্য হোস্টেল বন্ধের সিদ্ধান্ত নেয় কর্তৃপক্ষ।

খালেদা জিয়ার প্যারোলে মুক্তি নিয়ে যা বললেন তার আইনজীবী

কারাবন্দী বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার প্যারোলে মুক্তি পাওয়ার বিষয়টি রাজনৈতিক সিদ্ধান্ত বলে মন্তব্য করেছেন তার আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন। আজ রোববার কুমিল্লার হত্যা মামলায় খালেদা জিয়ার জামিন বহালের আদেশের পর সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ মন্তব্য করেন।

খন্দকার মাহবুব বলেন, ‘আমি বারবার বলেছি, প্যারোলের বিষয়টি রাজনৈতিক বিষয়। এখানে ম্যাডাম খালেদা জিয়া প্যারোলে যাবেন কিনা এবং সরকার প্যারোল দেবে কিনা এটা রাজনৈতিক সিদ্ধান্ত। আমরা আইনজীবী হিসেবে বলতে পারি, চিকিৎসার জন্য প্যারোল যায়।’

রাজনৈতিক অঙ্গনে প্যারোলে যাওয়া প্রায়ই দেখা যায় জানিয়ে এই আইনজীবী বলেন, ‘আমাদের দেশে, ভারতে ও পাকিস্তানে প্যারোলে মুক্তির পাওয়ার অনেক নজির আছে। আমরা চাই তাকে আইনগতভাবে মুক্তি দেওয়া হোক।’জামিন বহালের বিষয়ে খন্দকার মাহবুব বলেন, ‘সরকারের আবেদন ডিসমিসড করে জামিন বহাল রেখেছেন।

সরকারের বাধার কারণে আইনি প্রক্রিয়ায় জামিন কঠিন হবে। এখনো তার দুটি মামলা পেন্ডিং আছে। তবে এর মধ্যে আর কোনো মামলা না দিলে ওই দুটি (জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও চ্যারিটেবল ট্রাস্ট) মামলায় জামিন পেলে তিনি জেল থেকে বের হবেন।’ এ সময় খালেদা জিয়ার প্যারোলে মুক্তির জন্য কোনো আবেদন করা হয়নি বলে জানান তার অন্যতম আইনজীবী জয়নুল আবেদীন।

মহানবীকে (সাঃ) কটূক্তিকারীর বিচার দাবিতে নড়াইলে বিক্ষোভ

ইসলাম ধর্মকে অবমাননা ও মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) কে নিয়ে কটূক্তি করে ফেসবুকে আপত্তিকর পোস্ট দেওয়ায় নড়াইলে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ হয়েছে। আজ ৭ এপ্রিল রবিবার সকালে পুরাতন বাস টার্মিনাল এলাকায় তৌহিদী জনতার ব্যানারে ২ ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে কয়েক হাজার মানুষ।

তারা কটূক্তিকারী রাজকুমার সেনের ফাঁসির দাবি করে বিভিন্ন স্লোগান দিতে থাকে। এ সময় জনতাকে সামাল দিতে জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জসিমউদ্দিন উপস্থিত জনতার মাঝে বক্তব্য রাখেন। পরে জেলা প্রশাসক বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

জানা যায়, অভিযুক্ত রাজকুমার সেন গত ২৮ মার্চ তার ‘রাজকুমার সেন’ নামের ফেসবুক পেজ এ মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)-কে নিয়ে কটূক্তি ও আপত্তিকর মন্তব্য করে একটি পোস্ট দেয়। এ ঘটনা জনসমক্ষে আসার পর রবিবার (৩১ মার্চ) তার বাড়ি থেকে আটক করে সদর থানা পুলিশ।

ওই দিনই তার বিরুদ্ধে সদর থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হয়ে আদালতে প্রেরণ করলে আদালত তাকে জেলহাজতে প্রেরণ করে। গ্রেপ্তারকৃত রাজকুমার সেন (২৮) নড়াইল সদর উপজেলার হবখালী ইউনিয়নের বসুপাড়া গ্রামের চান্দু সেনের ছেলে।

নড়াইলের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জসিমউদ্দিন বলেন, তৌহিদী জনতার ব্যানারে যে বিক্ষোভ হয়েছে তা শান্ত হয়েছে, তাদের দাবি যেন উপযুক্ত বিচার হয়, আমরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম তথা ডিজিটাল মিডিয়া নিয়ে সতর্ক আছি, কোনোরকম সামাজিক পরিবশে বিঘ্ন ঘটলে তা দমন করা হবে।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর