,

17

নতুন আইজিপি’র বিশালতা এবং এরশাদ-নূর মোহাম্মদের প্রত্যাশা

হাওর বার্তা ডেস্কঃ সাবেকদের নিমেষেই ভুলে যান সবাই। তাদের ভাল কাজের মূল্যায়ন দিতেও কুন্ঠাবোধ থাকে অনেকের। এমনকি তাদের অবদানের কথাও স্বীকার না করাটাও যেন রীতিমতো এক ‘ট্র্যাডিশন’ হয়েই দাঁড়িয়েছে। অথচ এতোদিনের সেই চেনা সংস্কৃতি’র জোয়ারে নিজেকে ভাসাননি তিনি।

বরং পেশাদারিত্ব থেকেই পুলিশের সাবেক তিন মহাপরিদর্শকদের (আইজপি) প্রতি আবেগ, অনুভূতি আর গভীর ভালবাসার বহি:প্রকাশ ঘটিয়েছেন। দেশপ্রেমিক এ বাহিনীর ইতিবাচক পরিবর্তন ধারার কারিগর হিসেবে তাদের উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করে প্রকারান্তরে নিজের বিশালতারই পরিচয় দিয়েছেন বাংলাদেশ পুলিশের নতুন মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড.মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী।

পুলিশ বাহিনীর আধুনিকায়ন ও সংস্কারসহ নানামুখী পদক্ষেপে অকপটে সাবেক তিন আইজিপি’র অবদানের কথা স্বীকার করার পাশাপাশি তাদের যোগ্যতার মূল্যায়ন করে শান্ত, সৌম্য ও হৃদয়বান এ আইজিপি বলেছেন, ‘পুলিশে যে পরিবর্তনটুকু এসেছে তা শুরু হয়েছে আইজিপি নুর মোহাম্মদের সময় থেকে।

পরবর্তী সময়ে হাসান মাহমুদ খন্দকারও এই ধারাবাহিকতা বজায় রেখেছেন। এরপর তিন বছর ধরে সফলতার সঙ্গে একেএম শহীদুল হক কাজ করেছেন।’

সৎ, মেধাবী ও পেশাদার কর্মকর্তা হিসেবে পুলিশ বাহিনীতে সুনাম রয়েছে নতুন আইজিপি ড.মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারীর। চাঁদপুরের মান্দারী গ্রামের সন্তান জাবেদ ষষ্ঠ বিসিএসে (১৯৮৪) পুলিশ ক্যাডারে মেধা তালিকায় প্রথম স্থান অধিকার করে বাংলাদেশ পুলিশে যোগ দেন।

৩২ বছরের বর্ণাঢ্য কর্মজীবনে তিনি সবশেষ স্পেশাল ব্রাঞ্চের (এসবি) অ্যাডিশনাল আইজি (গ্রেড-১) হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। পদক্রমের জ্যেষ্ঠতা অনুসারেই মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী এ ঝানু কর্মকর্তাকে আইজিপি হিসেবে নিয়োগ দিয়ে দেশের সচেতন নাগরিক থেকে শুরু করে রাজনৈতিক পর্যবেক্ষক মহলেরও অভিনন্দনের জোয়ারে ভাসছেন বঙ্গবন্ধু কন্যা, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

কর্মজীবনে নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করে প্রশংসিত ড.মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারীকে নিয়ে গর্ব করেন ৩ বছর ৭ মাস পুলিশের আইজি হিসেবে দায়িত্ব পালন করা বৃহত্তর ময়মনসিংহের কিশোরগঞ্জের সন্তান নূর মোহাম্মদ। হাওর বার্তার সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, আমি যখন আইজিপি, জাবেদ তখন স্পেশাল ব্রাঞ্চের অ্যাডিশনাল আইজি।

পেশাদারিত্বের পাশাপাশি নিপাট ভদ্র মানুষ হিসেবেই তিনি পরিচিত। পুলিশের উজ্জ্বল ভাবমূর্তি বিনির্মাণে জাবেদ সফল হবে। জনস্বার্থ, জননিরাপত্তা ও জনশৃঙ্খলা এ তিনটি বিষয়কে গুরুত্ব দিয়ে কাজ করার মতোই দক্ষ কর্মকর্তা জাবেদ পাটোয়ারী এমনটি উল্লেখ করে তিনি বলেন, ভাল এবং সফল আইজিপি হিসেবে একদিন ওর (জাবেদ পাটোয়ারী) সুনাম ছড়িয়ে পড়বে। দায়িত্ব শেষ করলেও কর্মগুণেই দেশবাসী তাকে মনে রাখবে, যোগ করেন সাবেক এ আইজিপি।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন পুলিশ প্রধান হিসেবে ড.মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারীর জন্য চ্যালেঞ্জ কীনা এ প্রশ্নের জবাবে নূর মোহাম্মদ বলেন, ‘প্রতিটি ইলেকশনই একটি বড় চ্যালেঞ্জ। এ চ্যালেঞ্জ নিয়েই পুলিশ কাজ করে।

ইতোমধ্যে তাঁর চাকরির জীবনে অনেক নির্বাচন সে পেয়েছে। পুলিশের বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তা হিসেবে চ্যালেঞ্জ নিয়েই সফলতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করেছে। এখন আইজিপি হিসেবে নির্বাচন ফেইস করবে। এটি অনেকটাই রুটিন ওয়ার্কের মতো।’

পুলিশের নতুন মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড.মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারীর ভূয়সী প্রশংসা করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও সাবেক রাষ্ট্রপতি এইচ.এম.এরশাদও। সাবেক এ সেনা প্রধান হাওর বার্তার সঙ্গে আলাপকালে বলেন, নির্বাচনকালে দেশের আইন-শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে রাখা নতুন আইজিপি’র জন্য একটি চ্যালেঞ্জ।

দীর্ঘ চাকরি জীবনে তাঁর কোন দুর্নাম নেই। সততার সঙ্গেই তিনি দায়িত্ব পালন করেছেন। আমার বিশ্বাস তিনি এ দায়িত্ব সফলতার সঙ্গেই পালন করতে পারবেন।

গণমুখী পুলিশিং প্রথা চালু হলেই পুলিশ ও জনগণের মধ্যকার দূরত্ব কমবে বলে মন্তব্য করে সাবেক এ প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘পুলিশের গতানুগতিক দৃষ্টিভঙ্গিও পরিবর্তন করতে হবে। পরস্পরের প্রতি দৃষ্টিভঙ্গি ও দূরত্ব ঘোচাতে গণমুখী পুলিশিং ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে হবে। বর্তমান আইজিপি’র দক্ষ ও বলিষ্ঠ নেতৃত্বে পুলিশ প্রত্যাশিত মানেই জনগণকে সেবা দিতে পারবে বলেই আমি মনে করি।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর