,

79964_man

‘মৌচাকে ঢিল’, পরিণামে ১,০০০ হুলের জ্বালা এবং অতঃপর…

মানুষের যেমন আছে মানবাধিকার, মৌমাছিদের তেমন কি আছে? অবশ্যই, তাদেরও অধিকার আছে শান্তিতে বাস করার। মৌমাছির অধিকারকে ব্যাখ্যার জন্য কোন শব্দ ব্যবহার করবেন, সেটা নিজেই বের করে নিন। তাদের শান্তিতে ব্যাঘাত ঘটালে শুধু আপনার নয়, পুরো এলাকাবাসীই পড়তে পারেন বিপদে। তো যুক্তরাষ্ট্রের অ্যারিজোনা অঙ্গরাজ্যের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় কিংম্যান এলাকার কাছেই ঘটলো তেমনই একটি ঘটনা। কাজ করার সময় বাড়ির পেছনের দিকে একটি বিরাটাকায় মৌচাকের মৌমাছিদের বিরক্ত করছিলেন এক ব্যক্তি। ঢিল ছুড়েছিলেন কিনা, তা ঠিক জানা যায়নি। ব্যস! হাজার হাজার মৌমাছির একটি ঝাঁক তাড়া করলো তাকে। পরে তাকে বাগে পেয়ে ৫০০ থেকে ১,০০০ বার হুল ফুটিয়ে দিলো। ভাগ্য ভালো, দৌড়ে নিজ গাড়িতে আশ্রয় নিয়েছিলেন। সাধারণত, এতোবার বিষাক্ত হুল ফোটানোর ঘটনায় আক্রান্ত ব্যক্তি মারা যান। তবে এক্ষেত্রে অনেকটা ভাগ্যক্রমেই  বেঁচে গেলেন ওই ব্যক্তি। তার পরিচয় প্রকাশ করা হয়নি। কিংম্যান রিজনাল মেডিকেল সেন্টারে ভর্তি করা হয় তাকে। এখন তার শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। এ যাত্রায় বড় বাঁচা বেঁচে গেছেন তিনি। স্থানীয় পুলিশের মুখপাত্র লেজলি ডেস্যান্টিস জানান, ওই মৌচাকে এতো মৌমাছি থাকার বিষয়টি অবিশ্বাস্যই বটে। ডেপুটি পুলিশ কর্মকর্তা তো এ ঘটনাকে হলিউডের কোন সিনেমায় দেখা দৃশ্যের মতো বলেই ব্যাখ্যা করলেন। মৌমাছি হুল ফোটানোর পর তিনি দ্রুত দৌড়ে গাড়িতে ওঠেন। এ সময় পাশ দিয়ে যাওয়া দুই পথচারী তার প্রতি সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেন। তারাও হুলের বিষে আক্রান্ত হয়েছেন। তবে তাদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়নি। এদিকে এ ঘটনায় মৌমাছি পালনকারী এক ব্যক্তিকে ঘটনা নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য ডাকা হলে, তাকেও ২৩ বার হুল ফোটায় মৌমাছিগুলো। তিনি কর্তৃপক্ষকে জানান, ওই মৌমাছিগুলোকে নিয়ন্ত্রণে আনতে কয়েকদিন সময় লেগে যাবে। কর্তৃপক্ষ স্থানীয় বাসিন্দাদের সতর্ক থাকার অনুরোধ জানিয়েছে। পোষা প্রাণীকে ঘরের বাইরে বেরোতে না দিতে, ওই স্থানের কাছাকাছি কোন স্থানে না হাঁটতে এবং জানালা বন্ধ করে গাড়ি চালানোর নির্দেশ দিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর