,

mujahidul-islam

সংকট কাটাতে বিকল্প রাজনীতির উত্থান ঘটাতে হবে : সেলিম

বুর্জোয়া রাজনীতির ব্যর্থতা ও দেউলিয়াপনা দেশকে বিপর্যয়ের মুখে এনে দাঁড় করিয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)’র সভাপতি কমরেড মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম । তিনি বলেন, সর্বক্ষেত্রে যে সংকট, পচন ও অবক্ষয় দেখা দিয়েছে। সমাজ ও রাষ্ট্রব্যবস্থার আমূল বিপ্লবী গণতান্ত্রিক পরিবর্তন ছাড়া অন্য কিছু দিয়ে তা নিরসন করা যাবে না।

আজ রবিবার সিপিবি’র কেন্দ্রীয় কমিটির সংশ্লিষ্ট শাখার সম্মেলনে কমরেড সেলিম এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, বর্তমান সংকট কাটাতে আওয়ামী লীগ ও বিএনপিকেন্দ্রিক বুর্জোয় রাজনীতির দ্বি-দলীয় মেরুকরণের বেড়াজাল থেকে দেশকে বের করে আনতে হবে। বাম-গণতান্ত্রিক বিকল্প রাজনীতির উত্থান ঘটাতে হবে।

কমরেড সেলিম আরো বলেন, সাম্প্রদায়িকতা, সাম্রাজ্যবাদ, লুটপাটতন্ত্র ও গণতন্ত্রহীনতা এখন দেশের সামনে সবচেয়ে বড় বিপদ। রাষ্ট্র ও সরকার সাম্প্রদায়িকতার পৃষ্ঠপোষকতা করছে। প্রশ্রয় ও সুযোগ পেয়ে সাম্প্রদায়িকতা ও জঙ্গি সন্ত্রাস দেশকে ধ্বংস করতে উদ্ধত হয়েছে। বিদেশি রাষ্ট্র ও শক্তির হস্তক্ষেপ বাড়ছে।

তিনি বলেন, ৫ জানুয়ারির প্রহসনের পাতানো নির্বাচনের মাধ্যমে দেশের নির্বাচন ব্যবস্থা ও গণতন্ত্রের ভিত্তিকে আরো দুর্বল ও ভঙ্গুর করে ফেলা হয়েছে। দেশ পরিচালিত হচ্ছে ‘সাম্রাজ্যবাদনির্ভর লুটেরা-পুঁজিবাদের’ ধারায়। বর্তমান সংকট থেকে মুক্তি পেতে হলে শত সংগ্রামের অগ্নিপরীক্ষায় উত্তীর্ণ কমিউনিস্ট পার্টিকে শক্তিশালী করতে হবে। শ্রেণিসংগ্রাম ও গণসংগ্রাম আরো জোরদার করতে হবে।

সম্মেলনে জামাল হায়দার মুকুলকে সভাপতি, মোতালেব হোসেনকে সাধারণ সম্পাদক ও হরেন্দ্র নাথ সিং-কে সহ-সাধারণ সম্পাদক করে সিপিবি’র কেন্দ্রীয় কমিটির সংশ্লিষ্ট শাখার নতুন কমিটি গঠন করা হয়।

অ্যাড. জেয়াদ আল মালুমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে সাধারণ সম্পাদকের রিপোর্ট উত্থাপন করেন শাখার সাধারণ সম্পাদক অনিরুদ্ধ দাশ অঞ্জন। রিপোর্টের ওপর আলোচনা করেন ডা. শিশির কুমার মজুমদার, লুৎফর রহমান, অ্যাড. সোহেল আহমেদ, হাসান তারিক চৌধুরী, আনোয়ার হোসেন রেজা, জামাল হায়দার মুকুল, মোতালেব হোসেন, সৈয়দ আহমেদ, আরিফুল ইসলাম নাদিম, অনির্বাণ সাহা, রমেন্দ্র বর্মন, অ্যাড. নেসার আহমদ।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর