,

112099_114_13877

রওশন এরশাদ মনগড়া কথা বলেছে : এরশাদ

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজের ছাত্রী তনু হত্যার প্রতিবাদে চলা আজকের হরতালকে সমর্থন করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ।

তিনি বলেছেন, দেশে এখন বিচারহীনতার সংস্কৃতি চলছে। সে কারণে তনু হত্যারও বিচার হবে না। জাতীয় পার্টি হরতালে বিশ্বাসী নয়, কিন্তু তনু হত্যার প্রতিবাদে তাদের সমর্থন আছে।

এরশাদ বলেন, জাতীয় পার্টিতে সুবিধাবাদীদের আর স্থান হবে না। রোববার যারা সংবাদ সম্মেলনে করে জাতীয় পার্টিতে গণতন্ত্র চর্চার বিষয়ে প্রশ্ন তুলেছেন, তারা সুবিধাবাদী। পার্টির গঠনতন্ত্রে ৩৯ ধারা না থাকলে রওশন এরশাদ ও আনিছুল ইসলাম মাহমুদ প্রেসিডিয়াম সদস্য হতো পারতো না।

সোমবার দুপুরে

রংপুর পল্লী নিবাসে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে এসব কথা বলেন তিনি।

এরশাদ বলেন, জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ৩৫ জন। তাদের মধ্যে ক’জন নিয়ে প্রেসিডিয়াম বৈঠক করে তারা? জাতীয় পার্টির গঠনতন্ত্র না জেনে রওশন এরশাদ মনগড়া কথা বলেছে। জাতীয় পার্টির সুযোগ সন্ধানী নেতাদের কাছে নিয়ে ক্ষমতার অপব্যবহার করছে রওশন এরশাদ।

রওশন এরশাদকে সংযত হবার আহবান জানিয়ে এরশাদ বলেন, ৩৯ ধারা জাতীয় কাউন্সিলের মাধ্যমে গঠনতন্ত্রে সংযোজন হয়েছে। তারা গঠনতন্ত্র না পরেই কথা বলছে। জাতীয় পার্টি কোনো কোম্পানি নয়, এটা গঠনতন্ত্র দ্বারা পরিচালিত। ৩৯ ধারা বাতিল করতে হলে জাতীয় কাউন্সিলের মাধ্যমে করতে হবে।

এরশাদ বলেন, মহাজোট সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করতে দেশে একের পর এক হত্যাকাণ্ড চালাচ্ছে একটি গোষ্ঠি। এদের খুঁজে বের করে দৃষ্টান্তমূলক শস্তি দেয়া হলে হত্যাকাণ্ড বন্ধ করা সম্ভব হতো।

তিনি বলেন, কিন্তু দেশে আইনশৃংলা পরিস্থিতি ভেঙে পড়ায় খুনিরা পার পেয়ে যাচ্ছে। গণতান্ত্রিক ধারায় নির্বাচন না হওয়ায় তার প্রার্থীদের পরাজয় বরণ করতে হয়েছে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন রংপুর মহানগর জাতীয় পার্টির আহবায়ক মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা, সদস্য সচিব এসএম ইয়াসির, জেলা জাতীয় পার্টির সদস্য সচিবে এইচ এম আসিফ শাহরিয়ারসহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ।

দু’দিনের সফরে সোমবার দুপুরে রংপুর আসেন এরশাদ।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর