,

7

পাঁচ লালকার্ডের ম্যাচে পিএসজির হার

হাওর বার্তা ডেস্কঃ রোববার (১৩ সেপ্টেম্বর) রাতে অবিশ্বাস্য এক ম্যাচ দেখেছে ফুটবল বিশ্ব। সেই ম্যাচে হাতাহাতিতে জড়িয়ে পাঁচ ফুটবলার লালকার্ড দেখে মাঠ ছেড়েছে। এর মধ্যে নেইমারসহ পিএসজিরই তিনজন। লাল-হলুদ মিলে এই ম্যাচে মোট ১৭টি কার্ড দেখান রেফারি, একবিংশ শতাব্দীতে লিগ ওয়ানের ইতিহাসে এই প্রথম! ম্যাচটিতে পিএসজি হেরে যায় ০-১ গোলে।

প্রথম ম্যাচে নেইমার-অ্যাঙ্গেল ডি মারিয়ারা ছিলেন না। সেই ম্যাচে হার মেনেছিল পিএসজি। আর রোববার রাতে দ্বিতীয় ম্যাচে মার্সেলির বিপক্ষে মাঠে নেমেছিলেন নেইমার-ডি মারিয়ারা। তবে এবারও জয় পায়নি। পিএসজিকে ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ানের ম্যাচে ১-০ গোলে হারিয়ে দিয়েছে মার্সেলি। ১৯৮৪-৮৫ সালের পর এই প্রথম ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ানে শুরুর দুই ম্যাচে হার দেখল পিএসজি।

ম্যাচের ৩১ মিনিটে জয়সূচক একমাত্র গোলটি করেছেন মার্সেলির ফ্লোরিয়ান থাউভিন। অবশ্য গোলের দারুণ কয়েকটি সুযোগ পেয়েছিল পিএসজি। ডি মারিয়া জালে বলও জড়িয়েছিলেন দ্বিতীয়ার্ধে। কিন্তু অফসাইডের কারণে সেটি বাতিল হয়। মার্সেলিও বল জালে জড়িয়েছিল আরও একবার। সেটিও বাতিল হয় অফসাইডের কারণে।

শুরু থেকেই ম্যাচটি ছিল উত্তেজনায় ঠাঁসা। যেটার রেশ গিয়ে পড়ে ম্যাচের শেষ মুহূর্তে। হাতাহাতি আর লাল কার্ডের মধ্য দিয়ে শেষ হয় সেটি। ম্যাচের শেষ পর্যায়ের অতিরিক্ত সময়ের শেষ মিনিটে একটি ফাউলকে কেন্দ্র করে ধাক্কাধাক্কিতে জড়ায় দুই দলের খেলোয়াড়রা। একে অপরকে লাথি দিতেও দেখা যায়। এই ঘটনায় লাল কার্ড দেখেন পিএসজির নেইমার, লেভিন কুরজাওয়া ও লিয়ান্দ্রো পার্দেস। অপরদিকে মার্সেলির জর্ডান আমাভি ও দারিও বেনেদেত্তো লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন।

মাঠ ছাড়ার সময় নেইমার চতুর্থ ম্যাচ অফিসিয়ালকে বলে যান, তাকে বর্ণবাদী আক্রমণ করা হয়েছে! তবে ম্যাচপরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে মার্সেলির ম্যানেজার আন্দ্রে
ভিলা-বোয়াস বলেন, ‘ফুটবলে বর্ণবাদের কোনো ঠাঁই নাই। আমি মানে করি না এটা ঘটেছে। আমাদের দেখতে হবে।’

পিএসজির ব্রাজিলীয় এই তারকা এতটাই উত্তেজিত ছিল যে ম্যাচ শেষে নিজের টুইটারে জানান, ‘তার একমাত্র আক্ষেপ আলভারো গঞ্জালেজের মুখে আঘাত না করা!

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর