,

2

কাকতালীয় হলেও তাদের লক্ষ্য একই

হাওর বার্তা ডেস্কঃ টলিউড চলচ্চিত্রের দর্শকপ্রিয় অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তী, নুসরাত জাহান ও প্রিয়াঙ্কা সরকার। চলতি মাসের শেষের দিকে তারা তিনজন-ই যুক্তরাজ্যের উদ্দেশ্যে উড়াল দেবেন। একই সময়ে লন্ডনে যাওয়ার বিষয়টি পুরোপুরি কাকতালীয়। কারণ তারা তিনজন একসঙ্গে কোনো সিনেমায় অভিনয় করছেন না। বরং আলাদা আলাদা চলচ্চিত্রের কাজে তাদের এ যাত্রা।

অভিনেত্রী ও তৃণমূল সাংসদ মিমি চক্রবর্তীর পরবর্তী সিনেমা ‘বাজি’। লন্ডনে শুটিং চলাকালীন করোনা প্রকোপ বেড়ে যায়। ফলে বাধ্য হয়ে শুটিং বাকি রেখে ভারতে ফিরে আসে সিনেমাটির পুরো টিম। এ সিনেমার অসমাপ্ত কাজ শেষ করতে সেপ্টেম্বরের শেষে লন্ডন পাড়ি জমাচ্ছেন এই অভিনেত্রী।

মিমি চক্রবর্তী বলেন—যতদূর জানি, বিদেশ সফরের ক্ষেত্রে ৭২ ঘণ্টা আগে করোনা পরীক্ষা করাতে হয়। তারপর ওখানে গিয়েও আবার টেস্ট করাতে হবে। এরপর শুটিং শুরু করতে পারবো। দেশে ফিরে আবার কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। যাইহোক, তবু যে কাজ শুরু হলো সেটাই বড় বিষয়।

পরিচালক সায়ন্তন ঘোষাল নির্মাণ করছেন ‘স্বস্তিক সংকেত’। এতে অভিনয় করছেন আরেক সাংসদ ও অভিনেত্রী নুসরাত জাহান। এ সিনেমার শুটিংয়ের উদ্দেশ্যে সেপ্টেম্বরের শেষের দিকে লন্ডন যাচ্ছেন এই অভিনেত্রী।

নুসরাত জাহান বলেন—সিনেমাটির চিত্রনাট্য একদম আলাদা। এমন চরিত্রে আগে অভিনয় করিনি। দোয়া করছি, সব নিয়ম মেনে, সচেতন হয়ে সবাই যেন কাজ শেষ করে ফিরতে পারি।

এতে রুদ্রাণী ও প্রিয়মের চরিত্রে অভিনয় করবেন নুসরাত ও গৌরব চক্রবর্তী। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ এবং বর্তমান সময়ের প্রেক্ষাপটে তৈরি হয়েছে চিত্রনাট্য। এতে গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে দেখা যাবে রুদ্রনীল ঘোষ এবং শাশ্বত চ্যাটার্জিকে।

অন্যদিকে একই সময়ে হিথরোর প্লেন ধরবেন টলিউডের আরেক নায়িকা প্রিয়াঙ্কা সরকার। কমলেশ্বর মুখার্জি পরিচালিত ‘অনুসন্ধান’ সিনেমার জন্য লন্ডন যাচ্ছেন তিনি। দীর্ঘদিন ঘরবন্দি থাকার পর এ সিনেমার মাধ্যমে কাজে ফিরবেন প্রিয়াঙ্কা।

লন্ডন প্রিয়াঙ্কার স্বপ্নের শহর। তাই এই সফর নিয়ে তার উচ্ছ্বাসের শেষ নেই। এ অভিনেত্রী বলেন—ছোটবেলা থেকেই স্বপ্নের শহর বলতে বুঝি লন্ডন। কোনো দিন যাওয়া হয়নি। এই প্রথম ‘হ্যারি পটারের’ দেশে যাব কাজ নিয়ে। আমি ভীষণ উচ্ছ্বসিত।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর