,

6

বার্সাতেই থাকছেন লিওনেল মেসি

হাওর বার্তা ডেস্কঃ লিওনেল মেসি বার্সেলোনা ছাড়ছেন নাকি থাকছেন? এ আলোচনাতেই সপ্তাহখানেক ধরে উত্তপ্ত ফুটবল মহল। ক্ষণে ক্ষণে উঠে আসছে নতুন নতুন সংবাদ। তবে এবার নতুন গুঞ্জন, বার্সেলোনাতেই থাকছেন আর্জেন্টাইন তারকা। আর গুঞ্জনের উৎস খোদ তার বাবা হোর্হে মেসি, যিনি মেসির মুখপাত্রও বটে। যদিও হোর্হে ব্যবহার করেছেন মাত্র দুটি শব্দ, ‘ভালো’ আর ‘হ্যাঁ’। আর এই শব্দে জোর বাড়িয়েছে আর্জেন্টাইন দুই সাংবাদিকের করা টুইট বার্তা!
আগের দিন বার্সেলোনা সভাপতি জোসেপ মারিয়া বার্তোমেউর সঙ্গে প্রায় দেড় ঘণ্টা আলোচনা করেন মেসির বাবা। তার সঙ্গে ছিলেন মেসির ভাই রদ্রিগো মেসি ও আইনজীবী হোর্হে পেকর্ত। আর সভাপতি বার্তোমেউর সঙ্গে ক্লাবের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করেছেন বোর্ড সদস্য হ্যাভিয়ের বোর্দাসও। কিন্তু জানা গেছে, কোনো সিদ্ধান্ত ছাড়াই শেষ হয় আলোচনা। যদিও কোনো পক্ষই এ নিয়ে মুখ খোলেনি, তবে স্প্যানিশ ও আর্জেন্টাইন গণমাধ্যমের বরাতে উঠে আসছে নানা সংবাদ।
নিজেদের যুক্তি তুলে ধরে আগের সিদ্ধান্তে অনঢ় ছিল দুই পক্ষই। ফ্রি ট্রান্সফারে ক্লাব ছাড়ার ব্যাপারে কথা বলেন মেসির বাবা। আর তাকে ক্লাবে রেখে দেওয়ার কথা জানিয়েছেন বার্তোমেউ। এমনকি নতুন করে আরও ২ বছরের জন্য চুক্তি করতে বলেন। এর বাইরে কেবল ৭০০ মিলিয়ন ইউরো প্রদান করে তবেই মেসি ক্লাব ছাড়তে পারবেন বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন। তবে ইতালিয়ান গণমাধ্যম মিডিয়াসেট দাবী করেছে, মেসির বাবা সঙ্গে কথা হয়েছে তাদের। আলোচনা কেমন হয়েছে জানতে চাইলে বলেছেন, ‘ভালো’। আর বার্সায় থেকে যাওয়ার কোনো সুযোগ রয়েছে কিনা জানতে চাইলে জবাব দিয়েছেন, ‘হ্যাঁ’।
এদিকে মেসির থেকে যাওয়া নিয়ে দুই আর্জেন্টাইন সাংবাদিক মার্তিন আরেভালো ও সিজার লুইস মার্লো সামাজিক মাধ্যমে জানিয়েছেন, বার্সেলোনাতেই থেকে যাওয়ার সম্ভাবনা বেশি মেসির। টুইটারে আরেভালো লিখেছেন, ‘আগামীকাল (আজ) লিওনেল মেসিকে নিয়ে চূড়ান্ত কিছু হতে পারে। দৃশ্যপটে আসতে পারে নতুন কিছু। বিশ্বসেরা ফুটবলারের ২০২১ সালের জুন পর্যন্ত থেকে যাওয়ার নিরেট সম্ভাবনা আছে। চুক্তির মেয়াদ পূর্ণ করবেন তিনি এবং এ মুহ‚র্তে বিষয়টি নিয়ে তিনি ভাবছেন। নেতৃত্বস্থানীয় ব্যক্তিরা তাকে (বার্সায়) থেকে যাওয়ার অনুরোধ করেছেন। মেসি খুব দ্রুতই এর সমাধান করবেন এবং জানাবেন। দেখা যাক কী ঘটে।’ লুইস মার্লো দুইটি ভিন্ন টুইটে লিখেছেন, ‘মেসির বার্সেলোনায় থেকে যাওয়ার সম্ভাবনা ৯০ শতাংশ। আগামীকাল এ নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত। ২০২১ সাল পর্যন্ত বার্সেলোনায় থেকে যাওয়ার ব্যাপারে গুরুত্ব দিয়ে ভাবছেন মেসি। চুক্তির মেয়াদ পূর্ণ করেন যাবেন তিনি।’
গত মঙ্গলবার বুরোফ্যাক্স বার্তায় বার্সেলোনা ছাড়তে চাওয়ার কথা ক্লাবকে জানিয়ে দেন মেসি। তখন থেকেই নানা গুঞ্জন। সংবাদ আসে, গেল ১০ জুনের মধ্যে ক্লাব ছাড়ার কথা জানালে বিনা রিলিজ ক্লজে বার্সা ছাড়তে পারতেন মেসি। আর চলতি মৌসুম দেরিতে শেষ হওয়ায় মেসির দাবী, সে সময়টা দীর্ঘায়িত হয়েছে ৩১ আগস্ট পর্যন্ত। পরে জানা যায়, চুক্তির শর্ত অনুযায়ী, শেষ মৌসুমে রিলিজ ক্লজ কার্যকর হবে না মেসির। অর্থাৎ চাইলে এ মৌসুমে বিনা রিলিজ ক্লজে যেতে পারবেন বার্সা অধিনায়ক।
সে ক্ষেত্রে পরবর্তী গন্তব্য ম্যানচেস্টার সিটি কি না, এমন সম্ভাবনা অবশ্য হোর্হে উড়িয়ে দিলেও এরই মধ্যে স্কাই স্পোর্টসের বরাত দিয়ে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, ইংলিশ ক্লাব ম্যানচেস্টার সিটিতে যেতে জোর ইচ্ছা পোষন করেছেন মেসি। আর্জেন্টাইন তারকাকে ডেরায় ভেড়াতে ৬২৩ মিলিয়ন ইউরোয় পাঁচ বছরের চুক্তিতেও নাকি সায় দিয়েছেন বার্সা অধিনায়ক! শর্ত মোতাবেক তিন বছর ইংলিশ ক্লাবে খেলার পর দুই বছর নিউ ইয়র্ক সিটির হয়ে মেজর লিগ সকারে খেলতে হবে রেকর্ড ছয়বারের বর্ষসেরা ফুটবলারকে।
যদি তা না হয়, তবে অন্য এক পথের সন্ধানও দিয়েছে ইএসপিএন। সূত্র মারফত তারা জানিয়েছে, রিলিজ ক্লজ দেওয়া ছাড়াই মেসির ক্লাব ছাড়ার পথ করে দিতে পারে বার্সা। শর্তটা ভীষণ কঠিন। মেসি ফ্রি-এজেন্ট হিসেবে বার্সা ছাড়তে পারবেন যদি আগামী মৌসুমে ফুটবল না খেলেন। সহজ কথায় পরের মৌসুমে মেসি কোনো বেতন পাবেন না এবং আগামী গ্রীষ্মের আগে তিনি কোনো দলে যোগ দিতে পারবেন না—তবেই তাঁকে ফ্রি-তে ক্লাব ছাড়ার পথ করে দেবে বার্সা। তখন অবশ্য এমনিতেই মেসির সঙ্গে বার্সার বর্তমান চুক্তির মেয়াদ ফুরোবে।
কিন্তু সব বিষয়ই পুরো উল্টো বলছে বার্সা কর্তৃপক্ষ। তাদের দাবী, চুক্তি অনুযায়ী রিলিজ ক্লজের পুরো ৭০০ মিলিয়ন পরিশোধ করেই ক্লাব ছাড়তে হবে মেসিকে। এমনকি তাদের সঙ্গে সায় দিয়ে একই কথা বলে লা লিগা কর্তৃপক্ষ। তাই বিষয়টি ক্রমেই ঘোলা হচ্ছে। আলোচনাতেও কোনো সিদ্ধান্ত আসেনি। ঝুলে আছে মেসির ভবিষ্যৎ। এখন ফুটবলপ্রেমীরা অপেক্ষায় আছেন চূড়ান্ত রায় জানার জন্য।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর