,

Gun-Fight

টেকনাফে দুই মাদক কারবারী গ্রুপের গোলাগুলিতে নিহত ৪

হাওর বার্তা ডেস্কঃ কক্সবাজারের টেকনাফে আধিপত্য ও ভাগবাটোয়ারা বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুই মাদক গ্রুপের মধ্যে গুলাগুলির ঘটনায় চারজন’ নিহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার (২৮ জুলাই) ভোরে হোয়াইক্যং ইউনিয়নের খারাংখালী সাতঘরিয়া পাড়া এলাকায় এ গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন টেকনাফ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ।

পুলিশ ঘটনাস্থল তল্লাশী করে ৫০হাজার ইয়াবা, ২টি দেশীয় তৈরী এলজি, ৪ রাউন্ড তাঁজা বুলেটসহ গুলিবিদ্ধ অবস্থায় নয়াবাজার পূর্ব সাতঘরিয়া পাড়ার নুর আহমদের পুত্র মোহাম্মদ ইসমাঈল ওরফে ইমাইন্যা (২৫), পূর্ব মহেশখালীয়া পাড়ার মৃত হাকিম আলীর পুত্র মোঃ আনোয়ার (২৪), মৃত আব্দুস সালামের পুত্র নাছির (২৩) এবং হোয়াইক্যং আমতলী ঘোনার পাড়ার আব্দুল মালেকের পুত্র আনোয়ার হোসেন (২৫) কে উদ্ধার করে।

ওসি জানান, হোয়াইক্যং খারাংখালীর সাতঘরিয়া পাড়া এলাকায় ইয়াবার লেনদেন নিয়ে দু’গ্রæপের মধ্যে গোলাগুলি হচ্ছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ ঘটনা স্থলে যায়। সেখানে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণ করে মাদক কারবারিরা।

পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি বর্ষণ করে। এক পর্যায়ে মাদক কারবারিরা পিছু হটলে ঘটনাস্থলে চারজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া যায়। পরে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদেরকে মৃত ঘোষণা করেন।

পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ৫০ হাজার ইয়াবা, ২টি দেশিয় তৈরি অস্ত্র গুলি জব্দ করে। নিহতদের মধ্যে বাংলাদেশি ও পুরাতন রোহিঙ্গা রয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য নিহতদের মৃতদেহ কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে বলেও জানান প্রদীপ কুমার দাশ।

টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কম্পলেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক জানান, পুলিশ গুলিবিদ্ধ ৪ ব্যক্তিকে হাসপাতালে নিয়ে আসলে তাদের পরীক্ষা নিরীক্ষা করে মৃত ঘোষণা করা হয়।

উল্লেখ্য, ইয়াবা গডফাদার নুর হাফেজ মারা যাওয়ার পর তার ভাই মোঃ নুর এখন শক্তিশালী একটি সিন্ডিকেট গড়ে তোলে এবং মহেশখালীয়া পাড়ার কয়েক চিহ্নিত মাদক কারবারীরা এখনো মাদকের তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর