,

28

স্কুলছাত্রী ফারজানাকে ধর্ষণ ও হত্যা মামলা : হাইকোর্টে ২ জনের মৃত্যুদণ্ড বহাল

হাওর বার্তা ডেস্কঃ কুমিল্লার দেবিদ্বারে চাঞ্চল্যকর শিশু ছাত্রী ফারজানা আক্তারকে (১২) ধর্ষণ ও হত্যা মামলায় আবদুর রশিদ ও বশিরুল আলম নামের দুই আসামির ফাঁসির রায় হাইকোর্টে বহাল রাখা হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে উচ্চ আদালতের রায়ের ওই নথি হাতে পেয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক শাহ কামাল আকন্দ ও আদালত সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

 ২০১০ সালের ১৬ জুন সকালে দেবিদ্বার উপজেলার নারায়ণপুর গ্রামের স্কুলছাত্রী ফারজানা আক্তারকে বিদ্যালয়ে যাওয়ার পথে একটি বাঁশঝাড়ের নিচে ধর্ষণ ও শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় শিশুটির বাবা আবু বকর সিদ্দিক দেবিদ্বার থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি হত্যা হামলা দায়ের করেন। ২০১৪ সালের ১৪ আগষ্ট কুমিল্লার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক জেসমিন আরা বেগম ওই মামলায় চার্জশিটভুক্ত আসামি আবদুর রশিদ (২৭) ও বশিরুল আলমকে (২৭) ফাঁসির আদেশ এবং প্রত্যেককে এক লাখ টাকা করে জরিমানার রায় দিয়েছিলেন।
 কুমিল্লার আদালত সূত্রে জানা যায়, ওই মামলায় দুই আসামির ফাঁসির রায় দেয়ার পর উক্ত রায়ের বিরুদ্ধে আসামিপক্ষ হাইকোর্ট বিভাগে ফৌজদারী আপিল নং ৬৫০২/১৪, জেল আপীল নং ১৩১/১৪ ও ১৩২/১৪ এবং ডেথ রেফারেন্স ৫৭/১৪ দায়ের করে। কিন্তু আপিল না মঞ্জুর করে এর নিস্পত্তিতে হাইকোর্টের একটি ডিভিশন বেঞ্চ সম্প্রতি দুই আসামীর ফাঁসির রায় বহাল ও বলবৎ রাখে।
মঙ্গলবার দুপুরে মামলার তৎকালীন তদন্তকারী কর্মকর্তা (বর্তমানে ওসি ডিবি- ময়মনসিংহ) পুলিশ পরিদর্শক শাহ কামাল আকন্দ পিপিএম (বার) উচ্চ আদালতের নথি হাতে পেয়ে বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ‘শিশু ফারজানাকে ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত দুই আসামি আবদুর রশিদ ও বশিরুল আলম নৃশংসভাবে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছিল, গ্রেফতারের পর উভয় আসামি আদালতে ঘটনায় জড়িত থাকার বিষয়ে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দিয়েছিল।’
তিনি আরো বলেন, ‘মামলার তদন্তে ও নিম্ন আদালতের রায়ে ধর্ষণ ও হত্যার বিষয়টি সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হয়েছে। তাই উচ্চ আদালত চাঞ্চল্যকর এ মামলার আপিল নিস্পত্তিতে এক পর্যবেক্ষণে তদন্ত কর্মকর্তা কর্তৃক সঠিক তদন্তে ২৪ ঘণ্টার মধেই রহস্য বের করা ও নিম্ন আদালতে বিচার কাজের বিষয়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। তদন্ত কর্মকর্তা হিসেবে ন্যায় বিচারের স্বার্থে দ্রুততম সময়ে দণ্ডপ্রাপ্তদের ফাঁসির রায় কার্যকর হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেছেন।’

এদিকে শিশু ফারজানার পরিবারও উচ্চ আদালতে ফাঁসির দন্ডপ্রাপ্ত ২ আসামির ফাঁসি বহাল রাখার খবরে খুশি, তারাও অবিলম্বে দুই ঘাতকের ফাঁসি কার্যকরের দাবি করেছেন।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর