,

23

ট্রেনে কাটা পড়ে মৃত্যু: আর কতদিন অরক্ষিত থাকবে রেলক্রসিং

হাওর বার্তা ডেস্কঃ অরক্ষিত রেলক্রসিং যে মৃত্যুফাঁদে পরিণত হয়েছে এ নিয়ে অনেক আলোচনা হলেও রেলক্রসিংয়ে মৃত্যুর ঘটনা কমছে না। এছাড়া অবৈধ রেলক্রসিংয়েও প্রতি বছর মারা যাচ্ছে অনেক মানুষ।

অবৈধ রেলক্রসিংয়ে দুর্ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্তদের দায় কার এ নিয়ে যত মতভেদই থাকুক না কেন, এ বিষয়ে বাংলাদেশ রেলওয়েরও করণীয় রয়েছে। দেশের বৈধ-অবৈধ সব রেলক্রসিং কতটা বিপজ্জনক অবস্থায় রয়েছে, গণমাধ্যমে প্রকাশিত এ বিষয়ক বিভিন্ন প্রতিবেদনের দিকে তাকালেই তা স্পষ্ট হয়।

দেশের সব রেলক্রসিং সুরক্ষিত থাকলেও আরও অনেক কারণেই হতাহতের ঘটনা ঘটতে পারে। মোবাইল ফোনে কথা বলতে বলতে রেললাইন দিয়ে হাঁটার সময় অহরহ দুর্ঘটনা ঘটছে। এছাড়া হেডফোনে গান শুনতে শুনতে রেললাইনের ওপর দিয়ে বা পাশ দিয়ে হাঁটার সময়ও অনেক দুর্ঘটনা ঘটেছে।

রেলওয়ে আইন অনুযায়ী রেলপথের দুই পাশে কয়েক ফুট জায়গায় চলাচলের বিষয়ে নিষেধাজ্ঞা আছে, যা অনেকেই জানেন না। মাত্র কয়েক মিনিট সময় বাঁচানোর জন্য অনেকে চলন্ত ট্রেনের সামনে দিয়ে সড়ক পার হওয়ার চেষ্টা করেন। জীবন বাজি রেখে এ কাজ করতে গিয়ে অনেকেই বড় ধরনের দুর্ঘটনার শিকার হন। কেউ কেউ এতটাই নির্বোধ যে অরক্ষিত রেলক্রসিংয়ের গা ঘেঁষে অথবা রেললাইনের পাশেই পসরা সাজিয়ে বসেন।

লক্ষ করা যায়, ট্রেন আসার পূর্বমুহূর্তে লাইনম্যান দু’দিকে ব্যারিকেড দিয়ে রাস্তা পারাপারের ব্যবস্থা বন্ধ করে দিলেও কেউ কেউ নানা কৌশলে রেললাইন পার হওয়ার চেষ্টা করেন। এক্ষেত্রে কিছু মোটরসাইকেল চালকের বেপরোয়া মনোভাবের বিষয়টি বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য।

ট্রেন কাছাকাছি চলে এলেও কেউ কেউ খুব দ্রুত রেললাইন পার হওয়ার চেষ্টা করেন। এদের নিবৃত্ত করতে গিয়ে দায়িত্বরত গেটম্যানকে হিমশিম খেতে হয়। যারা জেনেবুঝে দুই মিনিট সময় বাঁচাতে গিয়ে জীবন বাজি রাখছেন, তাদের সচেতন করার কাজটি সহজ নয়। তারপরও মানুষকে সচেতন করার বিষয়ে বাংলাদেশ রেলওয়েসহ সংশ্লিষ্ট সব কর্তৃপক্ষকে সমন্বিত উদ্যোগ নিতে হবে।

ট্রেনের সঙ্গে সেলফি তোলার বিষয়টি দুর্ঘটনার ক্ষেত্রে নতুন মাত্রা যোগ করেছে। রোববার দুপুরে রাজধানীর কুড়িলে রেললাইনে সেলফি তুলতে গিয়ে প্রাণ গেছে এক শিক্ষার্থীর। এ সময় আহত হয়েছে অপর এক শিক্ষার্থী। এরা স্কুল ফাঁকি দিয়ে সেলফি তুলতে গিয়ে দুর্ঘটনার শিকার হয়েছে।

সেলফি তুলতে গিয়ে কেউ যাতে ঝুঁকি না নেয়, এ জন্য সবাইকে সচেতন করার উদ্যোগ নিতে হবে। বস্তুত এ নেশায় পড়ে বিশ্বে কত তাজা প্রাণ যে নিঃশেষ হচ্ছে, তার সঠিক হিসাব পাওয়াও মুশকিল। আজকাল কিছু অপরিণামদর্শী ব্যক্তি সেলফি তোলার জন্য ঝুঁকিপূর্ণ স্থানকে বেছে নিচ্ছে।

ট্রেনের সঙ্গে সেলফি তোলার বিষয়টিও এর একটি। এ কারণেও এখন ট্রেন দুর্ঘটনায় হতাহতের সংখ্যা বেড়েছে। কাজেই রেলক্রসিংয়ে দুর্ঘটনা রোধে পদক্ষেপ নেয়ার পাশাপাশি এসব দিকেও যথাযথ দৃষ্টি দেয়া প্রয়োজন।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর