,

7

প্রাণচঞ্চল ক্রেতা-দর্শনার্থী

হাওর বার্তা ডেস্কঃ ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার ২১তম দিনেও ক্রেতা দর্শনার্থীদের মিলন মেলায় পরিণত হয়েছে। মেলা প্রাঙ্গণ জুড়েই প্রাণচঞ্চল ক্রেতা-দর্শনার্থীরা। মেলা চষে বেড়াচ্ছেন পছন্দের পণ্য ক্রয়ে। বেশির ভাগ দর্শনার্থী তরুণ তরুণী হওয়ায় তাদের পছন্দের তালিকায় রয়েছে গতানুগতিক পোশাক ও প্রসাধনী। বিশেষ করে তরুণদের বেশির ভাগের পছন্দ ব্লেজার, মোদি কোট ও তরুণীদের বিভিন্ন ধরনের অলংকার ও নানা প্রসাধনী।

সরেজমিন দেখা যায়, ক্রেতাদের ভিড়ের মধ্যে ব্যস্ততম সময় পার করছেন বিক্রেতারা। মেলার শেষ দশদিনে চলে আসায় অনেকেরই পছন্দের পণ্য ক্রয়ে তাড়াহুড়ো করতেও দেখা যায়। নানা অফার আর লোভনীয় ছাড়ে প্রতিটি স্টল ও প্যাভিলিয়নে ক্রেতাদের ভিড়। একটি কিনলে আরেকটি ফ্রি ও নানান রাজকীয় অফারে চলছে বেচাকেনা।

এরই মধ্যে মেলায় আসা তরুণদের পছন্দের তালিকায় রয়েছে ব্লেজার ও মোদি কোট। আর তরুণীদের পছন্দের তালিকায় নানান প্রসাধনী ও অলংকার। মেলার ব্লেজারের স্টল ও অলংকার-প্রসাধনীর দোকানগুলোতেও ছিল উপচেপড়া ক্রেতাদের ভিড়। ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থী জুয়েল রানা বলেন, এর আগেও মেলায় বেশ কয়েকদিন এসেছি।

আজকে ব্লেজারের স্টল থেকে ব্লেজার কিনেছি। কম দামের মধ্যে ভাল মানের ব্লেজার পেয়েছি। তাছাড়া এ ধরনের স্টলগুলোতে তরুণদের ভিড় অনেক। জুয়েল রানার মতো আরো অনেক তরুণকে পছন্দের ব্লেজার ও কোট ক্রয় করতে প্রতিটি স্টলেই ভিড় জমাতে দেখা গেছে। অন্যদিকে নারীদের ব্যবহারের পণ্য সামগ্রী বিশেষ করে তরুণীরা দেশি-বিদেশি প্রসাধনী ও অলংকারের স্টলে ছুটে চলছেন।

বেশ কয়েকটি দেশি বিদেশি প্রসাধনী ও অলংকারের স্টল ঘুরে দেখা যায়, বিক্রয়কর্মীরা তাদের নানান পণ্যের গুনাগুন নিয়ে ক্রেতাদের আকর্ষণের চেষ্ঠায়রত। আর ক্রেতারাও পছন্দের পণ্য ক্রয়ে বেশ সতর্ক। তবে বিভিন্ন পণ্যে লোভনীয় ছাড় থাকায় সেদিকেই ঝুঁকছেন তারা। বিশেষ করে ঝুমকা, চুড়ি, আংটি, লিপস্টিক, নেইলপলিশ, ফেসপাউডার, আইলাইনার, আইশ্যাডো, ইমিটেশনের মালা, কানের দুল সবই মিলছে ওই সব স্টল-প্যাভিলিয়নে।

ফারজানা রহমান শিলা নামে বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া শিক্ষার্থী জানান, সস্তার বিভিন্ন অবস্থা থাকে। মেলায় যেসকল পণ্য এসেছে সেগুলোর মান নিয়ে সন্দেহ আছে। তারপরও ব্যবহারের জন্য প্রয়োজনীয় কিছু পণ্য কিনেছি।

পারফিউমের দোকান ঘুরে দেখা যায়, সাড়ে তিন হাজার টাকা মূল্যের একটি পারফিউমের সাথে ৫০০ টাকা ছাড়। তাছাড়া আরো কিছু স্টলে ৫০% পর্যন্ত ছাড়েও প্রসাধনী বিক্রি করতে দেখা গেছে। নানা অফার আর মূল্য ছাড়ের কারণে এসবগুলোতে ভালো বেচাকেনা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন বিক্রেতারা।

মেলা প্রাঙ্গণে ক্রেতা দর্শনার্থীরা যাতে কোনো ধরনের বিড়ম্বনায় না পড়েন তারজন্য মেলার গেট থেকে শুরু করে ভিতরের প্রতিটি মোড়ে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর পোষাকে ও সাদা পোশাকে নজরদারি দেখা গেছে।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর