,

1

বার্সার জয়ের নায়ক মেসি, জুভেন্টাসের রোনালদো

হাওর বার্তা ডেস্কঃ ক্যাম্প ন্যুতে ভালভার্দে যুগের সমাপ্তির সেতিয়েন অধ্যায়ের শুরুটা জয় দিয়েই রাঙিয়ে রাখল বার্সেলোনা। যদিও ম্যাচের ৭৫ মিনিট পর্যন্ত দম আটকে ছিল বার্সা সমর্থকদের। বুকের ভেতর ধুকধুকানি অনুভব করেছেন কিকে  সেতিয়েনও। কারণ বার্সার কোচিং ক্যারিয়ারে এটাই তার প্রথম ম্যাচ। বার্সার হয়ে নিজের প্রথম ম্যাচে নিজেদের মাঠেই জয় না পাওয়াটা বড্ড বেরসিক হয়ে যেত সেতিয়েনের জন্য। অবশ্য সেতিয়েনকে হতাশ করেননি তার শিষ্যরা। গোল ব্যবধান কম (১-০) হলেও বার্সেলোনার পরিবর্তনটা ছিল চোখে পড়ার মতো। বলের দখল নিয়ে এমন আক্রমণাত্মক ফুটবলই তো চেয়েছে কাতালানিয়ান সমর্থকেরা। সেতিয়েন তাদের সেই ফুটবলটাই উপহার দিয়েছেন। প্রথমার্ধ গোলশ‚ন্য থাকার পর দ্বিতীয়ার্ধে এসে গোলের দেখা পায় বার্সেলোনা। একমাত্র গোলের জাদুকর আর কেউ নন। বার্সার আর্জেন্টাইন ‘বিজ্ঞাপন’ লিওনেল মেসি।
লা লিগায় এক সময় লিওনেল মেসি-ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো দ্বৈরথ ছিল লিগের সবচেয়ে বড় আকর্ষন। রোনালদো এখন ইতালিয়ান সিরি’আর দল জুভেন্টাসে খেললেও সাবেক বড় প্রতিদ্ব›দ্বীর জ্বলে উঠার দিনে ঠিকই তুলে নিয়েছেন জোড়া গোল। তার নৈপুণ্যে ইন্টারের বিপক্ষে ২-১ ব্যবধানেও জেতে ইতালিয়ান চ্যাম্পিয়নরা। অন্যদিকে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে লিভারপুলের অবস্থা এখন যা, তাতে বলাই যায় মাঠে নামার আগেই যেন তারা জিতে যাচ্ছে। আর নিজেদের নিয়ে যাচ্ছে অনন্য উচ্চতায়। এবার ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের বিপক্ষে ২-০ গোলে জিতে এক ম্যাচ কম খেলে নিকটতম প্রতিদ্ব›দ্বী ম্যানচেস্টার সিটিকে (৪৮) তারা পেছনে ফেলেছে ১৬ পয়েন্টে। ২২ ম্যাচে ২১তম জয়ে ৬৪ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে অলরেডরা। আগের ম্যাচে বার্নলির কাছে ২-১ গোলে হেরে ১৯ পয়েন্ট পেছনে পড়েছে লিস্টার সিটি (৪৫)। জার্মান বুন্দেসলিগায় বড়দিনের লম্বা ছুটি কাটিয়ে লিগে টানা চতুর্থ জয় তুলে নিয়েছে বায়ার্ন মিউনিখ। বার্লিনের বিপক্ষে ৪-০ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে হ্যান্স ফ্লিকের দল।
লা লিগায় পরশু গ্রানাডার বিপক্ষে ১-০ গোলে জয়ের ম্যাচে একমাত্র গোলটি করেন মেসি। এ জয়ে সমান পয়েন্ট (৪৩) নিয়ে গোল ব্যবধানে এগিয়ে রিয়ালকে পেছনে ফেলল বার্সেলোনা। লিগে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে এখন বার্সেলোনা। পুরো ম্যাচে আধিপত্য ধরেই খেলেছে স্বাগতিকেরা। তবে জালে দেখা মেলেনি। দ্বিতীয়ার্ধে দু’বার হলুদ কার্ড দেখে ৬৯ মিনিটে মাঠ ছাড়েন গ্রানাডার জার্মান সানচেজ। বদলে যাওয়া বার্সেলোনা দশ জনের গ্রানাডাকে পেয়ে গোল দিতেও আর দেরি হয়নি। সাত মিনিট পর ভিদালের কাটব্যাকে দুর্দান্তভাবে বল জালে জড়ান মেসি। মেসির গোলে এগিয়ে যায় বার্সেলোনা। ম্যাচে ৮৩ শতাংশ সময় নিজেদের পায়ে বল রেখেছে বার্সেলোনা। আর গোলমুখে শট নিয়েছে ১৮টি যার ৬টি ছিল লক্ষ্যে।

আরেক ম্যাচে ইতালিয়ান সিরি আ’তে মেসির মতোই ছুটেছেন রোনালদো, জিতেছে তার দল জুভেন্টাসও। রোনালদোর জোড়া গোলে পারমাকে ২-১ গোলে হারিয়েছে ইতালিয়ান চ্যাম্পিয়নরা। পয়েন্টের হিসেবে শিরোপা দৌড়ে জুভেন্টাসের ওপর বাড়তি চাপ ফেলার সুযোগ ছিল ইন্টার মিলানের। ম্যাচের প্রথম গোলটি রোনালদোর কল্যাণেও এলেও তা এসেছে বিরতির ঠিক দুই মিনিট আগে। তবে পর্তুগিজ তারকার শট প্রতিপক্ষ খেলোয়াড়ের গায়ে লেগেই জড়িয়েছে জালে। জুভেন্টাসের হয়ে ২০০৫ সালের পর রোনালদোই প্রথম টানা ৭ ম্যাচে গোলের দেখা পেলেন। সর্বশেষ এমনটি করতে পেরেছিলেন ফরাসি দাভিদ ত্রেজেগে। ২০ ম্যাচে ৫১ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে জুভেন্টাস। সমান ম্যাচে ৪ পয়েন্ট কম নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে ইন্টার মিলান।

প্রিমিয়ার লিগের গত কয়েক মৌসুমে লিভারপুলের কাছে অস্বস্তির আরেক নাম ছিল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। আগের ১১ ম্যাচে কেবল একটি জয় ছিল তাদের। দুর্বার গতিতে এগিয়ে চলা লিভারপুল এবার একবারই পয়েন্ট হারিয়েছে, এই ম্যানইউর কাছেই। এবার পাত্তা পেলো না ম্যানচেস্টারের ক্লাব। ২-০ গোলে লিগে ইউনাইটেডের বিপক্ষে দ্বিতীয় জয়ের স্বাদ পেলেন ইয়ুর্গেন ক্লপ। পরশু অ্যানফিল্ডে ভার্জিল ফন ডাইক ও মোহামেদ সালাহর গোলে ম্যানইউকে হারিয়েছে লিভারপুল। ম্যাচের ১৪ মিনিটে দুর্দান্ত হেডে গোল করেন ফন ডাইক। যোগ করা সময়ের তৃতীয় মিনিটে কর্নারে জালের দেখা পায় ম্যানইউ। গোলকিপার ডি গিয়া ছাড়া সবাই ছিলেন লিভারপুলের ডিবক্সে। এই সুযোগ কাজে লাগায় স্বাগতিকরা। লিভারপুল গোলকিপার আলিসন দ্রæত বল বিপদমুক্ত করে সালাহকে দেন। একা দাঁড়িয়ে থাকা ম্যানইউ গোলকিপারকে পরাস্ত করতে ব্যর্থ হননি মিশরীয় ফরোয়ার্ড। জার্সি খুলে গোল উদযাপনে হলুদ কার্ড দেখেছেন সালাহ। এই হারে পঞ্চম স্থানে থাকলো ম্যানইউ। ২৩ ম্যাচে ৩৪ পয়েন্ট তাদের।

একই রাতে বুন্দেসলিগায় দ্বিতীয়ার্ধের ২৪ মিনিটের মধ্যে চার গোল করে হের্টা বার্লিনকে উড়িয়ে নতুন বছর শুরু করেছে জার্মান চ্যাম্পিয়নরা। ৪-০ গোলে জয়ের ম্যাচের ৬০তম মিনিটে টমাস মুলারের গোলের পর ৭৩ তম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন রবের্ত লেভানদোভস্কি। তিন মিনিট পর ব্যবধান বাড়ান থিয়াগো আলকান্তারা। আর ৮৪তম মিনিটে স্কোরলাইন ৪-০ করেন ক্রোয়াট মিডফিল্ডার ইভান পেরিসিচ। ১৮ ম্যাচে ১১ জয় ও তিন ড্রয়ে ৩৬ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে আছে বায়ার্ন মিউনিখ। ৪ পয়েন্ট বেশি নিয়ে শীর্ষে আছে লাইপজিক। এছাড়া কোপা ডে ফ্রান্সে আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড মাউরো ইকার্দির একমাত্র গোলে লরেন্টকে হারিয়েছে প্যারিস সেন্ট জার্মেই।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর