,

10

জেলায় জেলায় মহান বিজয় দিবস পালিত

হাওর বার্তা ডেস্কঃ যথাযোগ্য মর্যাদায় নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে দেশের বিভিন্ন জেলায় মহান বিজয় দিবস পালিত হয়েছে।

বাগেরহাট: নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে মহান বিজয় দিবস পালিত হয়েছে। সোমবার সকাল পোনে ৭টায় বাগেরহাট শহরে দশানীতে শহিদ মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিস্তম্ভে বাগেরহাটের জেলা প্রশাসক মো. মামুনুর রশীদ পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন। এরপর পর্যায়ক্রমে পুলিশ সুপার পংকজ চন্দ্র রায়, জেলা আওয়ামী লীগ, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, জেলা বিএনপি, প্রেসক্লাবসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও সামাজিক এবং সাংস্কৃতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে ফুলেল শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।

সকাল সাড়ে ৮টায় শেখ হেলালউদ্দীন স্টেডিয়ামে জেলা প্রশাসক মো. মামুনুর রশীদ জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন। পরে কুচকাওয়াজ, শরীরচর্চা ও ডিসপ্লে প্রদর্শন করা হয়। জেলা পুলিশ, আনসার, ফায়ার ব্রিগডে, বিএনসিসিসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করে। এসময় বাগেরহাট-৪ আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ডা. মোজাম্মেল হোসেন, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা শেখ কামরুজ্জামান টুকু এবং পুলিশ সুপার পংকজ চন্দ্র রায় উপস্থিত ছিলেন। পরে বীর মুক্তিযোদ্ধা ও শহিদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্যদের সংবর্ধনা দেয়া হয়।

বগুড়া: মহান বিজয় দিবসে জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পনসহ বিভিন্ন কর্মসূচী পালন করেছে জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন। সকাল ৮টায় শহীদ চাঁন্দু স্টেডিয়ামে শিশুকিশোর সমাবেশ, কুচকাওয়াজ ও ডিসপ্লে প্রদর্শন করা হয়। বগুড়া জেলা প্রশাসক ফয়েজ আহাম্মদ ও পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভুঞা বিপিএম কুচকাওয়াজে সালাম গ্রহণ করেন।

পরে বীরমুক্তিযোদ্ধা আমিনুল হক দুলাল অডিটরিয়ামে বেলা ১২টায় বীর মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ মুক্তিযোদ্ধ পরিবারবর্গের সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত হয়। জেলা প্রশাসক ফয়েজ আহাম্মদ, পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভুঞা বিপিএম, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবর রহমান মজনু ও সাধারণ সম্পাদক রাগেবুল আহসান রিপু, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ডা. মকবুল হোসেন প্রমুখ এসময় উপস্থিত ছিলেন। এদিন দুপুরে হাসপাতাল, জেলখানা, শিশু পরিবার, মুখ ও বধির উচ্চ বিদ্যালয় ও ভবঘুরে কেন্দ্রে উন্নতমানের খাবার পরিবেশন করা হয়।

ঝালকাঠি: বিজয় দিবসের সকালে মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পমাল্য অর্পণের মাধ্যমে স্বাধীনতার অমর সৈনিকদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন জেলা প্রশাসক মো. জোহর আলী। পরে পুলিশ সুপার ফাতিহা ইয়াসমিনসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও সংগঠনের পক্ষ থেকেও শ্রদ্ধা জানানো হয়।

এদিন, সকাল ৮টায় শেখ রাসেল স্টেডিয়ামে পায়রা ও বেলুন উড়িয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে কর্মসূচি উদ্বোধন করেন ঝালকাঠির জেলা প্রশাসক। পরে তিনি সম্মিলিত কুচকাওয়াজে সালাম গ্রহণ করেন। পুলিশ সুপার ফাতিহা ইয়াসমিন, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সরদার মো. শাহ আলম, পৌরসভার মেয়র মোহাম্মদ লিয়াকত আলী তালুকদার প্রমুখ এসময় উপস্থিত ছিলেন।

জয়পুরহাট: একাত্তরের বীর শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানানোর মধ্য দিয়ে আজ জেলায় মহান বিজয় দিবস উদযাপন করা হয়। বিজয় দিবস উদযাপন উপলক্ষ্যে সোমবার সকাল সাড়ে ৬ টায় ৩১ বার তপোদ্ধনির মাধ্যমে কর্মসূচী শুরু হয়। জেলা প্রশাসন, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, আওয়ামী লীগ, পুলিশ প্রশাসন, ছাত্রলীগ, যুবলীগসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন স্থানীয় শহীদ ডা. আবুল কাশেম ময়দানে অবস্থিত স্মৃতিসৌধে শহীদদের স্মরনে পুষ্প্যমাল্য অর্পন করেন। সকাল ৯টায় ষ্টেডিয়ামে শিশুকিশোর সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। পুলিশ, আনসার-ভিডিপি, স্কাউটস, রোভার, বিএনসিসি, কাব-স্কাউটস, শিশুকিশোর সংগঠন সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা এতে অংশগ্রহন করেন। জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ জাকির হোসেন ও পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সালাম কবির পিপিএম কুচকাওয়াজের সালাম গ্রহন করেন এবং মনোজ্ঞ ডিসপ্লে শেষে বিজয়ী ও অংশগ্রহন কারী দলের হাতে পুরস্কার তুলে দেন।

এ সময় জয়পুরহাট-১ আসনের সংসদ সদস্য এ্যাড. সামছুল আলম দুদু, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আরিফুর রহমান, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক এসএম সোলায়মান আলী, জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আমজাদ হোসেন প্রমুখ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

লালমনিরহাট: মহান বিজয় দিবস উপলেক্ষ আজ সকালে জেলা শহরের মুক্তিযোদ্ধা সংসদ হতে মুক্তিযোদ্ধাদের নেতৃত্বে বিজয় র‌্যালী শহর প্রর্দক্ষিণ করে। পরে স্থানীয় শেখ কামাল ষ্টেডিয়াম মাঠে স্কুল-কলেজের শিক্ষাথীদের নিয়ে মনোরম কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত হয়। এদিকে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে এদিন শুরু হওয়া কৃষি উৎসব উপলক্ষে জেলা শহরের বিজয় র‌্যালীতে নেতৃত্ব দেন জেলা প্রশাসক মো. আবু জাফর, পুলিশ সুপার এসএম রশিদুল, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এ্যাড. মো. মতিয়ার রহমান, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডাার মো. মেজবাউদ্দিন প্রমুখ।

নীলফামারী: জেলায় দিনব্যাপী বিভিন্ন কর্মসিূচর মধ্যদিয়ে মহান বিজয় দিবস পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে জেলা শহরের স্বাধীনতা স্মৃতি অম্লান বেদিতে পুস্পমাল্য অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করে জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, মুক্তিযোদ্ধা সংসদসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক এবং সামাজিক সংগঠন।

জেলা প্রশাসনের পক্ষে জেলা প্রশাসক মো. হাফিজুর রহমান চৌধুরি ও পুলিশ প্রশাসনের পক্ষে পুলিশ সুপার মুহাম্মদ আশরাফ হোসেন ওই পুস্পমাল্য অর্পণ করেন। শেষে শহীদদের স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয় সেখানে।
পরে নীলফামারী সরকারী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে পুলিশ, আনসার ভিডিপিসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের শারীরিক কসরত অনুষ্ঠিত হয়। দিবসটি উপলক্ষে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধণা, বিভিন্ন হাসপাতাল, জেলখানা ও এতিমখানায় উন্নতমানের খাবার পরিবেশন, ক্রীড়া, চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, প্রীতি ফুটবলম্যাচ, লাঠি খেলা আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

নোয়াখালী: সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, ৩১ বার তোপধ্বনি, মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিফলকে পুষ্পস্তবক অর্পণ, কুচকাওয়াজ ও শরীরচর্চা প্রদর্শনী, আলোচনা সভা ও খেলাধুলা, চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা, বীর মুক্তিযোদ্ধা-বীরাঙ্গনা ও শহীদ পরিবারের সদস্যদের সংবর্ধনা এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে যথাযোগ্য মর্যাদায় জেলায় মহান বিজয় দিবস পালিত হয়েছে।

সকালে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের পর জেলা শহরের বিজয় মঞ্চ সংলগ্ন মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিফলকে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন জেলা প্রশাসক তন্ময় দাস ও পুলিশ সুপার আলমগীর হোসেন। পরে, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ নোয়াখালী ইউনিট, জেলা আওয়ামী লীগ, নোয়াখালী প্রেসক্লাব, নোয়াখালী পৌরসভা, মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ড, স্বাচিপ, জেলা আইনজীবি সমিতিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। সকাল ৯টায় নোয়াখালী শহীদ ভুলু স্টেডিয়ামে বীর মুক্তিযোদ্ধা, পুলিশ, আনসার, বিএনসিসি, স্কাউট, গালর্স গাইড, স্কুল-কলেজ ও মাদ্রাসা সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের আনুষ্ঠানিক কুচকাওয়াজ ও শরীর চর্চা প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হয়।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর