,

19

টি-টোয়েন্টিতে নতুন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ, টেস্টে মুমিনুলকে

হাওর বার্তা ডেস্কঃ বিশ্বসেরা অলরাউণ্ডার সাকিব আল হাসানের ১ বছরের নিষেধাজ্ঞার কারণে টেস্ট এবং টি-টোয়েন্টি দুই ফরম্যাটেই নতুন অধিনায়ক নির্ধারণ করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড-বিসিবি। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় আসন্ন ভারত সফরের জন্য মুমিনুলকে টেস্ট অধিনায়ক এবং মাহমুদুল্লাহকে টি-টোয়েন্টির অধিনায়ক হিসেবে ঘোষণা দেয়া হয়েছে।

সাকিব ইস্যুতে এদিন ভারত সফরের জন্য টেস্টে নতুন অধিনায়ক হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে মুমিনুল হকের নাম। টেস্ট সিরিজের আগে অনুষ্ঠিত হবে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ। ওই সিরিজের জন্য অধিনায়ক হিসেবে ঘো ষণা করা হয়েছে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের নাম।

এর আগে এদিনই ম্যাচ পাতানোর প্রস্তাব পেয়েও তা গোপন রাখার অভিযোগে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক সাকিব আল হাসানকে সব ধরনের ক্রিকেট থেকে ২ বছরের জন্য নিষিদ্ধ করে আইসিসি। তবে ওই অপরাধ এবং প্রদেয় শাস্তি সাকিব স্বীকার করে নেয়ায় তার সে শাস্তি ১ বছর স্থগিত করেছে নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি।

গত ১৭ অক্টোবর ভারত সফরের টি-টোয়েন্টি দল ঘোষণা করেছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। তবে অধিনায়কত্বসহ তিনটি জায়গায় এসেছে পরিবর্তন। তাই নতুন করে আবারো টি-টোয়েন্টি দল ঘোষণা করা হল দল দেশ ছাড়ার এক দিন আগে।

মঙ্গলবার (২৯ অক্টোবর) ঘোষিত এই দলের নেতৃত্বের ভার পেয়েছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। নিয়মিত অধিনায়ক সাকিবের নিষেধাজ্ঞার কারণে ভারত সফরে যাওয়ার সুযোগ না থাকায় তার বদলে দলকে নেতৃত্ব দেবেন রিয়াদ।

এদিকে এর আগেই ব্যক্তিগত কারণে ভারত সফর থেকে নিজেকে সরিয়ে নেন তামিম ইকবাল। তার স্ত্রী সন্তানসম্ভবা হওয়ায় ভারত সফর থেকে সরে দাঁড়ান দেশ সেরা এ ওপেনার। অন্যদিকে চোটের কারণে টি-টোয়েন্টি দলের সঙ্গী হতে পারছেন না মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনও।

যে কারণে তাদের বদলে দলে ডাকা হয়েছে তাইজুল ইসলাম, আবু হায়দার রনি ও মোহাম্মদ মিঠুনকে।

অন্যদিকে, ভারতের বিপক্ষে দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের জন্য ঘোষিত স্কোয়াডের নেতৃত্বে রয়েছেন মুমিনুল হক। যে দলে প্রথমবারের মত ডাক পেয়েছেন তরুণ ব্যাটসম্যান সাইফ হাসান। এছাড়া দলে ফিরেছেন আল আমিন হোসেন, যিনি টি-টোয়েন্টি স্কোয়াডের পর টেস্ট স্কোয়াডেও জায়গা পেলেন।

আগামীকাল ৩০ অক্টোবর ভারতের উদ্দেশে দেশ ছাড়বে বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টি দল। সফরে স্বাগতিকদের বিপক্ষে দুটি টেস্টের পাশাপাশি তিন ম্যাচের একটি টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলবে বাংলাদেশ দল। টেস্ট সিরিজের আগে মাঠে গড়াবে টি-টোয়েন্টি সিরিজ। ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি ম্যাচ তিনটি অনুষ্ঠিত হবে আগামী ৩, ৭ ও ১০ নভেম্বর।

ম্যাচগুলোর ভেন্যু যথাক্রমে দিল্লী, রাজকোট ও নাগপুর। ১৪ ও ২২ নভেম্বর ইনডোর ও কলকাতায় শুরু হবে টেস্ট দুটি।

অবশ্য একদিন আগেই সাকিব ভারত সফরে গেলে কি হবে, আর না গেলে কীভাবে দল সাজানো হবে এবং টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে ভারতের বিপক্ষে অধিনায়কত্ব করবেন কে? নাকি একাধিক কাউকে দুই ফরম্যাটের দায়িত্ব দেয়া হবে- এসব নিয়েই আলোচনা চলে বিস্তর।

তখন বোর্ড পরিচালকদের কেউ এ বিষয়ে কোন কথা না বললেও ভেতরের খবর ছিল- সাকিব না গেলে কীভাবে পরিস্থিতি মোকাবিলা করা যায় বা যাবে, তা নিয়েই কথা হয়েছে সেদিনের বোর্ড সভায়। এমনকি সম্ভাব্য বিকল্প অধিনায়ক নিয়েও আলোচনা হয় সেখানে।

সেদিন একটি দায়িত্বশীল সূত্রে এও জানা যায় যে, সাকিবের বিকল্প হিসেবে টেস্টে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের পাশাপাশি উচ্চারিত হয়েছে মুশফিকুর রহীমের নামও। সাকিব না গেলে টেস্ট দলের নেতৃত্ব দেবেন দুই ভায়রার যে কোনও একজন।

আর টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক পদে আসছে বড়সড় চমক! সাকিব দল পরিচালনায় না থাকলে ভাবা হচ্ছে মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের নাম। সাকিব শেষ পর্যন্ত না গেলে খুব সম্ভবত মোসাদ্দেকই হতে যাচ্ছেন টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক! তবে শেষমেশ মুশফিক দায়িত্ব নিতে অস্বীকৃতি জানালে সে সিদ্ধান্ত পাল্টাতে বাধ্য হয় বিসিবি। যার প্রেক্ষিতে আজ এই পাওয়া গেল এই নতুন ঘোষণা।

ভারত সফরে ১৫ সদস্যের বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টি দল-
মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ (অধিনায়ক), লিটন দাস, সৌম্য সরকার, নাইম শেখ, মোহাম্মদ মিঠুন, মুশফিকুর রহিম, আফিফ হোসেন, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, আমিনুল ইসলাম বিপ্লব, আরাফাত সানি, আল আমিন হোসেন, মুস্তাফিজুর রহমান, শফিউল ইসলাম, আবু হায়দার রনি ও তাইজুল ইসলাম।

ভারত সফরের টেস্ট সিরিজে বাংলাদেশ স্কোয়াড
মুমিনুল হক (অধিনায়ক), সাইফ হাসান, লিটন দাস, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মোহাম্মদ মিঠুন, সাদমান ইসলাম, ইমরুল কায়েস, মোসাদ্দেক হোসেন, মেহেদী হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, নাইম হাসান, মুস্তাফিজুর রহমান, আল-আমিন হোসেন, আবু জায়েদ রাহি, এবাদত হোসেন।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর