,

n27

কুষ্টিয়ায় সোহাগ হত্যা : দুইজনের মৃত্যুদণ্ড, ৩ জনের যাবজ্জীবন

হাওর বার্তা ডেস্কঃ কুষ্টিয়ায় সোহাগ হত্যা মামলায় দুই আসামিকে মত্যুদণ্ড ও তিনজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এছাড়া যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিদের প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড অনাদায়ে এক বছরের সশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দেয়া হয়।

বুধবার দুপুরে কুষ্টিয়া জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক অরুপ কুমার গোস্বামী এই রায় দেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার আহম্মদপুর গ্রামের আহাদ আলীর ছেলে নাজমুল ও ভেড়ামারা উপজেলার ১২ মাইল এলাকার আবুল কালামের ছেলে রনি। আর যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্তরা হলেন- শহরের চৌড়হাঁস এলাকার ইসমাইল হোসেনের ছেলে রাব্বি, একই এলাকার খলিলের ছেলে রফিক ও সদর উপজেলার কুমারগাড়া এলাকার আব্দুল আজিজের ছেলে সুজা।

রায় ঘোষণার সময় মত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত রনি আদালতে উপস্থিত ছিলেন। বাকি আসামিরা পলাতক রয়েছেন।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০১২ সালের ৯ অক্টোবর সকালে কুষ্টিয়া সদর উপজেলার কুমারগাড়া এলাকার আব্বাস উদ্দিনের ছেলে সোহাগকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায় আসামিরা। এর দুইদিন পর ১১ অক্টোবর ভেড়ামারা উপজেলার হার্ডিঞ্জ ব্রিজ সংলগ্ন বাগান থেকে সোহাগের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এই ঘটনায় সোহাগের খালু শহিদুল ইসলাম বাদী হয়ে অভিযুক্ত ৫ জনকে আসামি করে ভেড়ামারা থানায় হত্যা মামলা করেন।

কুষ্টিয়া জজ কোর্টের পিপি অ্যাডভোকেট অনুপ কুমার নন্দী জানান, ভেড়ামারা থানা পুলিশ ২০১৭ সালর ৩০ এপ্রিল আদালতে চার্জশিট জমা দেন। দীর্ঘ শুনানি শেষে আদালত আসামিদের দোষী সাব্যস্ত করে পেনাল কোড ৩০২/৩৪ ধারায় এ রায় ঘোষণা করেন।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর