,

01

আব্বা যখন জেলে আমাদের বাসায় রান্নার চালও ছিল না রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক

হাওর বার্তা ডেস্কঃ কিশোরগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক বলেছেন, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট যখন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যা করা হয়। এর কিছুদিন পরে আমার পিতাকে (বর্তমান রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ) বন্দি করে কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয় এবং দীর্ঘ আড়াই বছর কারাবরণ করেন।

আজ শনিবার (২৭ জুলাই) বিকেলে ইটনা উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় তিনি এসব কথা বলেন। রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ অডিটোরিয়ামে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

৭৫ এর পরবর্তী কষ্টের কথা স্মরণ করে এমপি তৌফিক বলেন, আব্বা যখন জেলে আমাদের বাসায় কেউ আসত না। বাসায় কেউ না আসার কারণে বাসার উঠোনে শেওলা পরে যায়। দীর্ঘ আড়াই বছর আমাদের অনেক কষ্টে দিন কাটাতে হয়েছে। এমনও সময় গেছে আমাদের বাসায় রান্নার চাল পর্যন্ত ছিল না। ছগির ভাইয়ের রেশনের দোকান থেকে আমি নিজে গিয়ে চাল বাসায় নিয়ে এসেছি। তারপর রান্না হয়েছে এবং আমার খেয়েছি।

তিনবারের সংসদ সদস্য তৌফিক আরও বলেন, এখন যারা আওয়ামী লীগ করছেন শুধু সুদিন আর সুদিন । ২০০৮ সালের পর থেকে আওয়ামী লীগ সরকারকে জনগণ ভোট দিয়ে টানা তিনবার নির্বাচিত করেছেন। তাই এখন যারা আওয়ামী লীগ করছেন সবাই সুদিনে আছেন। এ রকম সুদিন কিন্তু ছিল না।

এমপি তৌফিকের বক্তব্য শুনে অনেক নেতাকর্মীর চোখ অশ্রুসিক্ত হয়ে যায়।

ইটনা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হাজী ইসমাইল হোসেনের সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন কিশোরগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক। আরও উপস্থিত ছিলেন- ইটনা উপজেলা পরিষেদর চেয়ারম্যান চৌধুরী কামরুল হাসান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ওমর ফারুক, উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক সোহরাব উদ্দিন ঠাকুর, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রঞ্জিত রায়সহ ইটনা উপজেলা ৯ টি ইউনিয়ন ও ওয়ার্ডের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকরা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শফিকুল ইসলাম স্বপন।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর